Pages

11 June 2016

Clixsense সাইটে প্রাথমিক ভাবে কাজ শুরু করতে পারেন



অনলাইনে টাকা আয় করার জন্য আজকাল বিভিন্ন জন বিভিন্ন সাইটে কাজ করছেন, তবে দুঃখজনক ঘটনা হলো যে সবাই সব সাইট থেকে পেমেন্ট পাচ্ছে না। এখন, এমন একটা সাইটের সাথে পরিচয় করিয়ে দেব যেখান থেকে বঞ্চিত হবার সম্ভাবনা নেই। PTC (Paid To Click) হল নতুন লোকের জন্য আয় করবার সহজতম পথ। Clixsense একটা বিশ্বাসযোগ্য পিটিসি সাইট।

অনলাইনে টাকা আয় করবার অনেক পদ্ধতি মধ্যে একটা PTC অর্থ Paid To Click। এই PTC নিয়ে বাংলাদেশে কিছু নেতিবাচক ধারণা প্রচলিত আছে (Dolencer/skylencer এর কারনে বাংলাদেশের মানুষজণ মনে করে  PTC সাইট মানেই ধোঁকা বাজি)। তবে PTC সাইট থেকে আয় করবার  পদ্ধতি খুবই জনপ্রিয় এবং সব চেয়ে সহজ।  PTC শুনে ভয় পেয়ে যাবেন না, শুধু আসল সাইট চিনে ধৈর্য ধরে  কাজ করতে পারলে মাসে ৩,০০০ টাকা থেকে শুরু করে আরো অনেক টাকা আয় করা সম্ভব। clixsense এর বর্তমান সদস্য সংখ্যা ১ কোটির কাছাকাছি।
প্রতিদিন নতুন নতুন সাইট অনলাইন এ আসে, এদের মধ্যে অসৎ গুলো কয়েক মাস কাজ করেই স্ক্যাম  করে চলে যায়। সেহেতু নতুন সব সাইট স্ক্যাম ধরে নিয়ে নতুন কোন সাইট এ কাজ না করা বুদ্ধিমানের কাজ। যে সব সাইটের বয়স ৫ বছর বা তার বেশী শুধু সেই সমস্ত সাইট, গত ৫ বছর যাবৎ কোন প্রকার ঝামেলা ছাড়াই যেহেতু পেমেন্ট দিয়ে যাচ্ছে, তাই ধরা যায় ওরা স্ক্যাম নয়। এখানে clixsense-এর ptc-investigation রিপোর্ট পড়ে দেখুন।
গুগল-এ সার্চ  করে সাইট বের করবার চাইতে অভিজ্ঞ কারও পরামর্শ নেওয়া এ ক্ষেত্রে সঠিক ফল দেওয়ার কথা, কারন  ৩০০০ হাজার কোটি টাকার পিটিসির এই বিশ্ব বাণিজ্য টিকে আছে। অর্থাৎ সব সাইট অবশ্যই ভুয়া নয়। বলা হয়ে থাকে PTC সাইট থেকে আয় করা, Facebook ব্যাবহার করার চাইতেও সহজ।
২০০৩ সালে পিটিসি  সাইট চালু হয় প্রথমবারের মত। কিন্তু তখন তা জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারে নি। ২০০৭ সালে তা আবার আমেরিকা থেকে Jim Grago – ClixSense সাইটি চালু করে।
Clixsense সাইটে প্রাথমিকভাবে ভাবে কাজ শুরু করতে পারেন, ৫-৬ মাস পর অ্যাডভারটাইজ ক্রয় করে রেফারেল বৃদ্ধি করতে পারবেন      *। তবে অন্য যে কোন পিটিসি সাইট থেকে Clixsense সাইটের রেফারেলের আয়ের পরিমাণ অনেক বেশী।

clixsense-এ Signup

clixsense পলিসি অনুযায়ী সাইনআপ করতে হলে কোন রেফারেল আইডির মাধ্যমে রেজিষ্ট্রেশন করতে হবে। রেফারেল ব্যাতি রেখে আপনি  সরাসরিও সাইনআপ করতে পারবেন।
সাইনআপ  করবার পর clixsense আপনার ইমেইল একটি লিঙ্ক পাঠাবে। আপনাকে ইমেইলের ঐ লিঙ্ককে লিংকে ক্লিক করে আপনার ইমেইল নিশ্চিত করুন, তা অ্যাক্টিভ করুন। এখন থেকে আপনি তাদের সদস্য। আপনার লগিন নেম, পাশওয়ার্ড ব্যবহার করে আপনার একাউন্টে প্রবেশ করতে পারবেন
প্রথমবার লগইন করবার পরই একটা page আসবে, সেখানে কিছু  তথ্য পুরন করতে হবে এবং payment email দিয়ে দিতে হবে। যেহেতু বাংলাদেশ এ paypal নাই শুধু payza আছে, তবে আপনার যদি কোন payza এ্যকাউন্ট না থেকে থাকে তবে এখানে যে ইমেইল দিয়ে Signup করেছেন সে ইমেইলই দিয়ে দিতে পারেন; পরে সেই ইমেইল-এ্যড্রেস দিয়ে payza এ্যকাউন্ট তৈরি করে নেবেন।

clixsense  Account  এ লগিন  করুন

আপনার Account  এ লগিন করে সেখানে View ads এ ক্লিক করার পর অ্যাড এর পেজ আসবে। তাতে অ্যাড এ ক্লিক করার পর অ্যাড অন্য Tab  এ খুলবে। ঐ খানে আপনাকে পাচ টি ছবি থেকে বিড়াল এর ছবি তে ক্লিক করতে হবে। তারপর টাইমার শুরু (3 Sec -15-30 Sec) শেষ হলে এই Tab বন্ধ করে আরেকটা অ্যাড দেখেন। ক্লিক করে অ্যাড গুলো দেখেন, Your click has been Validated লিখাটি না আসা পর্যন্ত আপনাকে ঐ Page এ থাকতে হবে। এটাই আপনার প্রাথমিক কাজ। এ ভাবেই আপনার অ্যাকাউন্টে হিসাব মত ডলার (সেন্ট) জমা হতে থাকবে।
এমন প্রতিটি বিজ্ঞাপনে অপেক্ষা করে করে আপনি পাচ্ছেন ১ সেন্ট হতে ৪ সেন্ট  তবে পিটিসি সাইটগুলোতে বেশী পরিমানে আয় নির্ভর করে রেফারেল-এ। অর্থাৎ , যত বেশি রেফারেল তত বেশি উপার্জন। একজন রেফারেল নিজে এ্যাড দেখে যা আয় করবে তার অর্ধেকটাই যোগ হবে আপনার একাউন্টে।

আরো পয়সা পেতে চাইলে ClixSense এ অন্যান্য কাজগুলো দেখতে পারেন

ওয়েবসাইট দেখা | ভিন্ন অফার কমপ্লিট করা | গেইমস খেলার | অনলাইনে কেনাকাটা | জরিপের কাজ করা | বিভিন্ন প্রতিযোগিতা | নির্দিষ্ট কাজ সাবমিট করা | অন্যান্যদের কে রেফার করে
নতুন অ্যাকাউন্টে মিনিজব বা টাস্ক পাওয়া যায় না! এক মাস ক্লিক করার পর আস্তে আস্তে মিনিজব বা টাস্ক দেয়া শুরু হয়।
অ্যাকাউন্ট এর বয়স আর অ্যাড ক্লিকের সংখ্যা, যত বেশি হবে মিনি জব পাওয়ার সম্ভাবনা তত বেশি। সাধারনতঃ সপ্তাহ ক্ষাণিক পর বা তার আগেই মিনি জব পাওয়া যায়।
বাংলাদেশ সময় সকাল ৫ টা থেকে বেশি মিনি জব থাকে।
ClixSense এ দু ধরনের একাউন্ট আছে: ফ্রি একাউন্ট, যাকে বলা হয় স্ট্যান্ডার্ড মেম্বার আর একাউন্ট আপগ্রেড করে নিলে, বলা হচ্ছে প্রিমিয়াম মেম্বার।
বেশী পরিমান আয় করার জন্য প্রিমিয়াম মেম্বারশিপ প্লান আপগ্রেড করে নেওয়া যেতে পারে। ফ্রি/স্ট্যান্ডার্ড মেম্বারদের রেফারেল একটি টাস্ক কমপ্লিট করলে পাবে ৫% আর আপগ্রেড/প্রিমিয়াম মেম্বারা পাবে ১০% । প্রতি সদস্যকে ওরা একটি Personal Referral link দিয়ে দেয়, তা অন্য কারও সাথে মিলবে না। ঐ লিঙ্ককে ক্লিক করে নতুন যারা signup করবে তারা আপনার রেফারাল হয়ে যাবে।


clixsense-এ একটি সমস্যা, এরা Rented Referral বিক্রি করে না। আপনাকে যা আয় করতে হবে সব Direct Referral  এর মাধ্যমে।
* CLIXSENSE এ Direct Referral:
মাস ছয়েক ক্লিক করে যান, Direct referral  নিয়ে চিন্তা ভাবনা একেবারেই মাথায়ে আনবেন না; এর মধ্যে টাকা  Withdraw না করাই উচিৎ, পরে কাজে লাগবে। Clixsense -এর পুরা ব্যাপার টা বুঝে শুনে তারপর  Direct referral  যোগাড়ের কথা চিন্তা করবেন।
পিটিসি  সাইট এ যে সব অ্যাড দেখি তা কোন না কোন অ্যাডভারটাইজারে দেওয়া অ্যাড। NEOBUX/CLIXSENSE/AYUWAGE/ INNOCURRENT-এর মত সব বড় বড় পিটিসি সাইট এ ২ ধরনের অ্যাডভারটাইজার  থাকে:
১) SELF REFERRAL LINK/ BLOG  প্রমোট করে  যারা
২) Affiliate Marketer/ Forex/ Weight loss Companyর মত অ্যাডভারটাইজারা।
ঔ ২নং অ্যাডভারটাইজার এর কারনেই সাইট গুলো টিকে থাকে।
১ নং অ্যাডভারটিজার দের জন্য ছোট ছোট অ্যাড প্যাকেজ আছে: ২০ ডলারে ১০,০০০ ক্লিক।
এরকম ছোট  অ্যাড  package  কিনে আপনার Clixsense  রেফেরাল লিঙ্ক  প্রমোট করতে পারেন।
Neobux  এর মেম্বার ৩ কোটি আর  Clixsense  এর মেম্বার ১ কোটি। অ্যাক্টিভ মেম্বার ৪৫ লক্ষ।
আপনার Clixsense -এর লিঙ্ক Neobux-এ অ্যাড দেন তবে ডাইরেক্ট রেফারেল  পাবার সম্ভাবনা থাকেই।  যেহেতু  Neobux-এর ২ কোটি মেম্বার এখনো Clixsense এ জয়েন করেনি। আর পিটিসি সাইটে যারা কাজ করে তারা সবাই আরও নতুন নতুন সাইটে কাজ করতে চায়।
সূত্র: bd online earning

No comments:

Post a Comment